যুদ্ধাহত মাস্টার ইছহাক ভূঁইয়া (১৮৯৯-১৯৭৪)

Posted by ড. শাহীদা আখতার
Feb. 19, 2019, 4:44 p.m.
দুই মুক্তিযোদ্ধার পিতা মাস্টার ইছহাক ভূঁইয়া ১৯৭১ সালে পাকসেনাদের নির্যাতনের শিকার হন। ইছহাক ভূঁইয়ার বাড়ি ফেনী জেলার ফুলগাজী উপজেলার জগতপুর গ্রামে। তাঁর পিতা মরহুম ওমেদ রাজা ভূঁইয়া এবং মা মরহুম খোদেজা বিবি। ইছহাক ভূঁইয়া একজন স্কুল শিক্ষক ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে তাঁর প্রত্যক্ষ অবদান ছিল। তাঁর পুত্র নূর হোসেন, নূর উন নবী ভূঁইয়া এবং পুত্রবধু সৈয়দা জ্যোৎস্না আরা হাসি মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। এ ছাড়া ইছহাক ভূঁইয়া তাঁর এলাকার মুক্তিযোদ্ধাদের নানাভাবে সহযোগিতা করেন। তিনি তাদের খাদ্যের ব্যবস্থা এবং অর্থ দিয়ে সাহায্য করতেন। এসব কারণে তিনি পাকসেনাদের রোষানলে পড়েন। রাজাকারদের সহায়তায় পাকসেনারা ইছহাক ভুঁইয়াকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে অমানবিক নির্যাতন চালায়। এর ফলে তিনি পঙ্গু হয়ে যান এবং আর সুস্থ হতে পারেননি। পাকসেনারা তাঁর স্ত্রীকে অপমান করে। তাঁদের দুই কিশোরী মেয়ে পালিয়ে গিয়ে নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পায়। ১৯৭৪ সালের ৩০ নভেম্বর পঙ্গু অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। তথ্যঃ মুক্তিযোদ্ধা নূর উন নবী ভূঁইয়ার সাক্ষাৎকার থেকে প্রাপ্ত।